আনোয়ারায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

357

আনোয়ারায় পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মোহাম্মদ নাসির ওরফে মামুন (৩৫) নামে একজন নিহত হয়েছেন। নিহত মামুন আনোয়ারার বারাসাত ইউনিয়নের বোয়ালিয়ার বাসিন্দা হাজি কালামিয়ার ছেলে। সে জেলা পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ছিল। তার বিরুদ্ধে খুন গণধর্ষণ, চাঁদাবাজি, ছিনতাই চুরিসহ অন্তত ১৮টি মামলা রয়েছে।

শুক্রবার রাত দেড়টার দিকে উপজেলার দুধকুমড়া এলাকায় পুলিশের সাথে সন্ত্রাসীদের গোলাগুলিতে সন্ত্রাসী মামুনের মৃত্যু এবং দুই পুলিশ আহত হয়েছে বলে দাবী করে থানা পুলিশ।

আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল মাহমুদ জানান, গতকাল বিকালে শীর্ষ সন্ত্রাসী মানুনকে গ্রেফতারের পর রাত একটার দিকে তাকে নিয়ে পুলিশে অস্ত্র উদ্ধারে বের হয়।রাত দেড়টার দিকে দুধকুমড়া এলাকায় অভিযানের সময় সন্ত্রাসীরা পুলিশের হামলা চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি করলে দু’পক্ষের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধ হয়। এসময় গ্রেফতারকৃত আসামী পুলিশের হেফাজত থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় বন্দুকযুদ্ধে মারা যায়। পরে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে দেশে তৈরি দুইটি বন্দুক (এলজি) ও কয়েক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের এএসআই পলাশ মজুমদার ও কনেস্টেবল আকিবুর রহমান আহত হয়।

মামুন একজন ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসী ছিল। সে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ছিল। ৫/৬ আগে সে একবার চট্টগ্রাম আদালতে পুলিশ হেফাজত থেকে পালিয়ে গিয়েছিল। পরে গতকাল বিকালে তাকে আমরা গ্রেফতার করেছিলাম।এ ঘটনায় আনোয়ারা থানায় মামলা হয়েছে। আহত দুই পুলিশকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে জানান ওসি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here