আন্তরিক ভাবে দুঃখ প্রকাশ করেও একই দোষে নিষেধাজ্ঞা – ইলা জাহান নদী

342

 

বাংলাদেশ প্রযোজক পরিবেশক সমিতির আন্তজাতিক বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ ইলা জাহান নদীকে অসৌজন্যমূলক আচরণ এর কারনে তিন মাসের জন্য সমিতির কার্যনিবাহী সভার সকল কর্মকান্ড থেকে স্থগিত করেছে সমিতি।
ঘটনার সুত্রপাত ডাঃ ইলা জাহান নদীর ফেসবুক টাইম লাইনে লেখা একটি স্টাটাস কে কেন্দ্র করে।
তিনি লিখেছিলেন “অনেক প্যঁচাল সবাই বাঁচাল, তবু আশা ভালবাসা” এবং একটিভিটিতে লিখেছিলেন ফিলিং হোপ ফুল। এই প্রসংগে ডাঃ ইলা জাহান নদী বলেন, আমি মোটেও আমার সহকর্মীগণ বা কাউকেই অসম্মান করতে এটি লিখি নাই।
খুব ইতিবাচক মনোভাব নিয়েই সেটি লিখেছিলাম। একজন নবীন প্রযোজক হিসাবে আমি সিনিয়রদের অবশ্যই সম্মান করি।
সমিতি থেকে জানা যায়, নবনির্বাচিত কমিটির অধিকাংশ ই বিষয়টিকে অপত্তিকর মনে করেছিলেন এবং সমিতি থেকে তাকে কারণ দর্শিয়ে একটি নোটিশ প্রদান করা হয়। মৌখিক ভাবে অনেকে ইলা জাহান নদীকে বিষয় টির জন্য দুঃখ প্রকাশ করতে পরামর্শ করেছিলেন।
তার পেক্ষিতে ইলা জাহান নদী বেশ কিছু যুক্তি এবং ব্যকরণের কিছু ব্যক্ষা ও উপন্যাসের কিছু উদাহরণ উন্থাপনের পর তার পত্র মারফত আন্তরিক ভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন।
সমিতি তাকে আরো একটি পত্র দিয়ে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করে এবং পরবর্তীতে তাকে তিনমাসের জন্য সমিতির সকল কার্যক্রম থেকে স্থগিত করে।
অন্যন্য সদস্যের মাধ্যমে জানা যায় ইলা জাহান নদী তার কর্মকান্ডে দুঃখ প্রকাশ করে নাই বলেই তাকে শাস্তি প্রদান করা হয়েছে।
এই প্রসংগে ডাঃ ইলা বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন “সম্ভাবত তারা আমার চিঠি পড়েই দেখেন নাই । প্রথম নোটিশের জবাবেই আমি স্পষ্ট বাংলায় লিখেছিলাম “আমার লেখার কারনে (উল্লেখিত ফেসবুক পোষ্ট) শ্রুতিতে আঘাত হানার জন্য আমি আন্তরিক ভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি। আমার প্রেরিত পত্রটি সমিতিতে অবশ্যই আছে এবং তার অনুলিপি অফিস কতৃক স্বাক্ষরিত অবস্থায় রিসিভ কপি আমি রেখেছি।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here