আমি গানের মাস্টারিংটা ভালো বুঝি : মাহফুজুর রহমান

392

ড. মাহফুজুর রহমান এবারও পবিত্র ঈদুল ফিতরে ড. মাহফুজুর রহমান তার ভক্তদের গান শোনাবেন সে কথা আগেই জানান দিয়েছেন। নিজের গানের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এই মানুষটি সমস্ত সমালোচনাকে দুমড়ে-মুচড়ে ফেলে দিয়ে এবারও হাজির হচ্ছেন ‘নিজের স্পেশালিটি’ নিয়ে। এর আগে ২০১৭ সালে ঈদুল আজহায় প্রথম গান নিয়ে হাজির হন তিনি। তার কণ্ঠে একক সংগীতানুষ্ঠানটি প্রচারিত হওয়ার পরই তা ভাইরাল হয়ে যায়। শুধু ভাইরালেই শেষ নয়, গান প্রকাশিত হওয়ার পর তুমুল আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয় যা এখনো চলমান।

এবার ঈদের তৃতীয় দিন আজ শুক্রবার ভক্তদের জন্য দুটি গান উপহার দিতে যাচ্ছেন মাহফুজুর রহমান। তার গানের এই একক সংগীতানুষ্ঠান প্রচারিত হওয়ার আগে একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিজের গান, ঈদ ও ভক্তদের নিয়ে নানান কথা জানিয়েছেন।

ঈদে নিজের গানের বিষয়ে বলতে গিয়ে ড. মাহফুজ বলেন, ‘এ বছর দুটোর বেশি গান করিনি। কারণ শুধু করলেই তো হবে না। এগুলো মানসম্মত হতে হবে।’

‘আমি ব্যক্তিগতভাবে যেটা করি সেটা হলো, আমাদের এটিএন বাংলার যেসব গান প্রচারিত হয় তার মাস্টারিংটা আমি করি। এটা আমি কারো ওপর ছাড়ি না। কারণ এ কাজটা আমি খুবই ভালো বুঝি।’

তিনি বলেন, ‘আমি যে গানগুলোতে কাজ করি তার সাউন্ড বা মিক্সিং যেটা দেখেন তার সবগুলো আমার করা। আমি বিভিন্ন কাজে যখন বিদেশে যাই তখন সঙ্গে করে ক্যামেরাম্যান নিয়ে যাই। ক্যামেরা দিয়ে শ্যুট করে নিয়ে আসি। এভাবে কাজগুলো এগিয়ে রাখি। যাতে ঈদের আগে কোনো প্রেশার না পড়ে।’

মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘আজকে যে আমি শিল্পী হয়েছি, এটার অনেক বড় কারণ হলো আমি অনেক শিল্পী তৈরি করেছি। সেই শিল্পীগুলো শুধু সাধারণ শিল্পী তা নয়, যেমন আপনারা জানেন যে ইভা রহমান খুব অল্প দিনে শিল্পীদের মধ্যে টপে চলে গিয়েছিল। তো এই রকম একটা শিল্পী তৈরি করতে গেলে অনেক পরিশ্রম করতে হয়, অনেক শ্রম দিতে হয়। এরকম গান শেখাতে গিয়ে আমি নিজেই শিল্পী হয়ে গেছি।’

আলোচনা-সমালোচনার তুঙ্গে থাকার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সমালোচনাকে সবসময় আমি প্রাধান্য দেই এ কারণে যে আজকে কিন্তু হঠাৎ করে আমি শিল্পী হয়ে যাইনি। এর পেছনে সবচেয়ে বড় কারণ হলো এই সমালোচনা। কিন্তু আমার দুঃখ লাগে যে ফেসবুকে যারা সমালোচনা করে, এরা কেউ কিন্তু জিনিসটা বোঝে না।’

নিজের প্রতিদ্বন্দ্বীদের নিয়ে মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘কিছু আছে অন্য, আমার যারা শক্র। শক্রই বলবো বা যারা আমার সঙ্গে সবসময় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে আসছেন, এরা কিছু লোককে লেলিয়ে দেয়। এই যে কিছু আজেবাজে সমালোচনা করে, এরা কিন্তু এদের দ্বারাই প্রভাবিত হয়ে এটা করে।’

যারা তাকে নিয়ে সমালোচনা করেন তাদেরকে নিজের সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে মিশে দেখার আহ্বান জানান এই ব্যক্তিত্ব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here