আশরাফুলকে নিল চিটাগং ভাইকিংস

273

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসরের প্লেয়ার ড্রাফট চলছে। রোববার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে এই ড্রাফঠ শুরু হয়।

এবারের আসরে সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুলকে দলে ভিড়িয়েছে চিটাগং ভাইকিংস। ১৮ লাখ টাকায় তাকে নিয়েছে দলটি।

এবারের ড্রাফটে আশরাফুল ‘বি’ ক্যাটাগরিতে ছিলেন। দুপুর ১২টায় ড্রাফট শুরু হয়। এরপর সপ্তম কলে চিটাগং ভাইকিংস তাকে কিনে নেয়।

২০১৩ সালে বিপিএলে ফিক্সিং করে নিষিদ্ধ হন মোহাম্মদ আশরাফুল। ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে চলতি বছরের আগস্টে পুরোপুরি মুক্তি পেয়েছেন তিনি।

যদিও আরো এক বছর আগেই ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলার অনুমতি পেয়েছিলেন আশরাফুল। তবে আন্তর্জাতিক এবং ফ্রাঞ্জাইজি ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ছিলেন।

ঘরোয়া ক্রিকেটে দারুণ খেলছেন আশরাফুল। এরই প্রতিদান পেলেন বিপিএলে। এর সঙ্গে জাতীয় দলে ফেরার সব দরজা উন্মুক্ত হয়ে গেল তার সামনে।

প্লেয়ার ড্রাফটে এখন পর্যন্ত দেশি ক্রিকেটারের মধ্যে আরো যারা দল পেয়েছেন, তাদের তালিকা নিচে দেয়া হলো—

১. জহুরুল ইসলাম (খুলনা টাইটানস)
২. সৌম্য সরকার (রাজশাহী কিংস)
৩. মোসাদ্দেক হোসেন (চিটাগং ভাইকিংস)
৪. রুবেল হোসেন (ঢাকা ডায়নামাইটস)
৫. আফিফ হোসেন (সিলেট সিক্সার্স)
৬. আবু হায়দার রনি (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস)
৭. শফিউল ইসলাম (রংপুর রাইডার্স)
৮. সোহাগ গাজী (রংপুর রাইডার্স)
৯. এনামুল হক (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস)
১০. তাসকিন আহমেদ (সিলেট সিক্সার্স)
১১. নুরুল হাসান সোহান (ঢাকা ডায়নামাইটস)
১২. আবু জায়েদ (চিটাগং ভাইকিংস)
১৩. ফজলে মাহমুদ রাব্বী (রাজশাহী কিংস)
১৪. শরিফুল ইসলাম (খুলনা টাইটানস)
১৫. ফরহাদ রেজা (রংপুর রাইডার্স)
১৬. আরাফাত সানি (রাজশাহী কিংস)
১৭. সৈয়দ আহমেদ (চিটাগং ভাইকিংস)
১৮ আল আমিন হোসেন (সিলেট সিক্সার্স)
১৯. রনি তালুকদার (ঢাকা ডায়নামাইটস)
২০. তাইজুল ইসলাম (খুলনা টাইটানস)
২১. মেহেদি হাসান (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস)
২২. জিয়াউর রহমান (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস)
২৩. মোহাম্মদ আল আমিন (খুলনা টাইটানস)
২৪. শুভাগত হোম চৌধুরী (ঢাকা ডায়নামাইটস)
২৫. তৌহিদ হৃদয় (সিলেট সিক্সার্স)
২৬. নাঈম হাসান (চিটাগং ভাইকিংস)
২৭. আলাউদ্দিন বাবু (রাজশাহী কিংস)
২৮. মেহেদী মারুফ (রংপুর রাইডার্স)
২৯. মোহাম্মদ আশরাফুল ((চিটাগং ভাইকিংস)

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here