‘ছাত্রদল নেতা রনি ভাইয়ের মতো ৫ জন এগিয়ে এলে রিফাত বাঁচতো’

310

নিজস্ব প্রতিনিধি

‘রনির ভাইয়ের মতো আরও ৫ জন এগিয়ে এলে আমার স্বামী রিফাত শরীফ বাঁচতো’। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) বিকেলে রিফাতে নিজ বাড়িতে কাঁদতে কাঁদতে এমন আক্ষেপের কথা বলছেন স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি।

জানা যায়, রিফাতের ওপর হামলার সময় বরগুনা সরকারি কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি নুরুল ইসলাম রনি হামলাকারীদের শান্ত করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন।

বিকেলে রিফাতের দাফন শেষে নুরুল ইসলাম রনি জানান, সবাই দাঁড়িয়ে হত্যাকাণ্ড দেখবে সেটা কখনো হয় না। আমি যেহেতু মানুষ সেই হিসেবে আমার দায়িত্ব পালন করেছি। যতটুকু পেরেছি ততটুকু করেও শেষ পর্যন্ত রক্ষা করতে পারলাম না রিফাত শরীফকে। আমাদের ছেড়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন রিফাত। বড় কষ্ট হচ্ছে, বিবেকের কাছে নিজেকে অপরাধী মনে হচ্ছে।

এদিকে এ ঘটনার পর জেলা প্রশাসন, পুলিশ, র‍্যাব, জেলা গোয়েন্দা শাখার সদস্যরা শহরের বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি করছে।

বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রিফাতের বাড়িতে জানাজা নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

রিফাত শরীফের (২২) মরদেহ নিয়ে বরিশাল থেকে এ্যাম্বুলেন্স যোগে বরগুনায় নিজ বাড়ী সদর উপজেলার ৬ নম্বর বুড়িরচর ইউনিয়নের উত্তর বড়লবনগোলা গ্রামে দুপুর তিনটার দিকে এসে পৌছে।

বরগুনা জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মারুফ হোসেন জানান, রিফাত হত্যা ঘটনায় আরও এক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে তদন্তের স্বার্থে গ্রেফতার হওয়া আসামির নাম জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন তিনি।

বুধবার (২৬ জুন) সকালে বরগুনা সরকারি কলেজ রোড়ে সন্ত্রাসীরা স্ত্রীর সামনেই কুপিয়ে গুরুতর জখম করে রিফাত শরীফকে। পরে বিকেলে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ওই ঘটনার ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে দেশজুড়ে প্রতিবাদ-সমালোচনার ঝড় ওঠে। এরইমধ্যে দু’জনকে গ্রেফতার করার কথা জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here