পথে পথে শুভেচ্ছায় সিক্ত সাবিনারা

10

 

 

ছাদখোলা ‘চ্যাম্পিয়ন’ বাস। ইতিহাস গড়া নারী ফুটবলারদের নিয়ে ছুটে চলছে। আর বাঘিনীদের হাতে পতপত করে উড়ছে লাল-সবুজের পতাকা। রাস্তার দুপাশে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশের এই স্বর্ণকন্যাদের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। মেয়েরাও এই আবেগ ও ভালোবাসার জবাব দিচ্ছেন হাত নেড়ে। এ এক চোখ জুড়ানো দৃশ্য।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টায় ইতিহাসগড়া মেয়েরা যখন শাহজালাল বিমানবন্দরের বাইরে আসেন, তখনই শুরু হয় মানুষের উচ্ছ্বাস। ‘বাংলাদেশ, বাংলাদেশ’ শ্লোগানে ফুটবলারদের স্বাগত জানায় জনতা।

 

এরপর একে একে মেয়েরা চ্যাম্পিয়ন বাসে উঠে পড়েন। বাস যখন চলতে শুরু করে তখন পেছনে পেছনে ছুটে চলে মানুষ। এরপর যে সড়ক দিয়েই সাবিনাদের বাস যায় সেখানেই তাদের অভিবাদন জানাতে থাকে জনতা। এসময় সাবিনাদের সঙ্গে ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল।

বিমানবন্দর থেকে মেয়েদের বহনকারী বাসটি কাকলী, জাহাঙ্গীর গেট, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, বিজয় সরণি, তেজগাঁও, মৌচাক, কাকরাইল, আরামবাগ, মতিঝিল শাপলা চত্বর হয়ে বাফুফে ভবনে যাবে।

 

এর আগে দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে যখন মেয়েরা বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান তখন তাদের গলায় ফুলের মালা ও উত্তরীয় দিয়ে স্বাগত জানানো হয়।

কিন্তু বিমানবন্দরে নির্ধারিত সংবাদ সম্মেলন করতে পারেনি চ্যাম্পিয়ন দল। তবে বের হওয়ার সময় সংবাদমাধ্যমে ছোট্ট করে নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন দলের অধিনায়ক সাবিনা।

 

তিনি বলেন, সবাইকে ধন্যবাদ, আমাদের জন্য দোয়া করবেন। বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষ বলুন বা ১৮ কোটি কিংবা ২০ কোটি, এই ট্রফি বাংলাদেশের সব মানুষের।

সাবিনা বলেন, আমাদের এত সুন্দর করে বরণ করে নেওয়ার জন্য আমরা অনেক কৃতজ্ঞ।

এর আগে ১৯ সেপ্টেম্বর নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে প্রথমবারের মতো নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে শিরোপা জেতে বাংলাদেশ। স্মরণীয় এই জয়ে শামসুন্নাহার করেন একটি গোল। আর দুটি গোল করেন কৃষ্ণা রানী সরকার।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here