বাবার কোলে শিশুকে গুলি করে হত্যা : মূল হোতাসহ গ্রেফতার

9

 

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের মালেকা বাপের দোকান এলাকায় বাবার কোলে সন্ত্রাসীদের গুলিতে তিন বছরের শিশু তাসফিয়া আক্তার জান্নাত হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা সন্ত্রাসী রিমনসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

হত্যাকাণ্ডের তিন দিন আগে রিমন ২১ হাজার টাকা দিয়ে অস্ত্র ক্রয় করেছিলেন। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় নোয়াখালী র‌্যাব কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

তিনি জানান, তাসফিয়া হত্যা মামলার প্রধান আসামি রিমন (২৩) ও তার সহযোগী সোহেল উদ্দিন (২৪), সুজন (২৬), নাইমুল ইসলাম (২১) ও আকবর হোসেনের (২৬) অবস্থান নিশ্চিত হয়ে মঙ্গলবার রাতে জেলার সুবর্ণচরের চরক্লার্কে অভিযান চালায় র‌্যাবের একটি দল। এ সময় ওই সন্ত্রাসীরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দুই রাউন্ড গুলি ছুঁড়লে র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। পরে অবস্থা বেগতিক দেখে তারা পিছু হটার চেষ্টা করলে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে পাঁচটি গোলাবারুদ, একটি পিস্তল, একটি পাইপগান ও ৬ রাউন্ড গুলি জব্দ করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ১৩ এপ্রিল বিকেলে বেগমগঞ্জ উপজেলার রাসেদ মিয়ার বাড়ির সৌদি প্রবাসী মাওলানা আবু জাহের (৩৭) তার ৩ বছর বয়সের শিশু কন্যা জান্নাতুল ফেরদৌস তাসফিয়াকে কোলে নিয়ে স্থানীয় মালেকার বাপের দোকানে চিপস কিনে দেয়ার জন্য আসেন। এ সময় শীর্ষ সন্ত্রাসী রিমনের নেতৃত্বে তার বাহিনীর সদস্যরা প্রকাশ্যে গুলি চালায়। এতে মাওলানা আবু জাহের ও তার কোলে থাকা শিশু জান্নাতুল ফেরদৌস তাসফিয়া গুলিবিদ্ধ হন। ঢাকা নেয়ার পথে রাত ৯টায় জান্নাত মারা যায়।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকেলে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে ১৭ জনকে এজাহারভুক্ত আসামি এবং ১০ থেকে ১২ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here