বাস চালককে পিটিয়ে হত্যা, চট্টগ্রামে পরিবহন ধর্মঘটের ডাক

218

পুলিশ পরিচয়ে বাস চালককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ এনে বিচারের দাবিতে চট্টগ্রামে ৪৮ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন শ্রমিক নেতারা।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৬টা থেকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আন্তঃজেলার ৬৮টি এবং আরাকান সড়ক সংলগ্ন স্থানীয় ১৯টি সড়কে ২৪ ঘণ্টার যাত্রীবাহী পরিবহন ধর্মঘট এবং রোববার (২৮ এপ্রিল) সকাল ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত বৃহত্তর চট্টগ্রামে পণ্য ও যাত্রীবাহী পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন তারা।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) সন্ধ্যায় সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ মুছা’র সভাপতিত্বে জরুরি সভা শেষে এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

পূর্বাঞ্চলীয় সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মৃণাল চৌধুরী জানান, সোমবার (২২ এপ্রিল) রাতে শ্যামলী পরিবহনের বাস চালক জালাল উদ্দীনকে পটিয়ার শান্তির হাট এলাকায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে বাস থেকে নামিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে বিচার চাই।

তিনি বলেন, বিচারের দাবিতে চট্টগ্রামের শ্রমিক সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে ৪৮ ঘণ্টার পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে দোষীদের চিহ্নিত এবং আইনের আওতায় আনা না হলে আরও বৃহত্তর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম জানান, সোমবার রাত সাড়ে আটটায় শ্যামলী এনআর পরিবহনের চালক মো. জালাল উদ্দিন ঢাকা মেট্রো ব ১৪-৭৪০২ চেয়ার কোচ নিয়ে গাজীপুরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। রাত সাড়ে ১১টায় পটিয়া শান্তিরহাট এলাকায় পৌঁছালে সাদা মাইক্রো থেকে নেমে সিভিল ড্রেসের কিছু লোক হাতে ওয়ারলেস, হ্যান্ড কাপ ও অস্ত্র হাতে গাড়িটিকে সিগন্যাল দিয়ে থামায়।

তিনি বলেন, তারা গাড়িতে উঠে চালককে পেটাতে পেটাতে পার্শ্ববর্তী নির্জন জায়গায় নিয়ে যায়। নির্যাতন করে ইয়াবা থাকার বিষয়ে স্বীকারোক্তি আদায়ের চেষ্টা করে। চালকের স্বীকারোক্তি না পেয়ে নাক-মুখ গামছা দিয়ে বেঁধে পানি ঢালতে থাকে। এক পর্যায়ে তাকে গাড়িতে তুলে দেওয়া হয়। পরে জালাল উদ্দিনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here