ভারতকে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে বাংলাদেশ

7

 

সাফ অনূর্ধ্ব-২০ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে বাংলাদেশ যুব দল। শ্রীলঙ্কার পর আজ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতকে হারিয়েছে বাংলাদেশ।

ভারতের ভুবেনশ্বরের কালিঙ্গ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে বাংলাদেশ ২-১ গোলে হারায় স্বাগতিক দলকে। এই জয়ে বাংলাদেশ দুই ম্যাচ শেষে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষস্থান দখল করল।

বাংলাদেশের পক্ষে জোড়া গোল করেছেন পিয়াস আহমেদ নোভা।

ম্যাচের ৩ গোলই হয়েছে প্রথমার্ধে। প্রথমার্ধেই বাংলাদেশের ২-১ গোলে এগিয়ে যায়। ম্যাচ শেষেও এই স্কোর লাইন বহাল থাকায় গত দুই বারের রানার্সআপদের এখন ফাইনালে খেলার রাস্তাটা প্রশস্থ হলো। সাথে ২০১৯ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ সাফের ফাইনালে ভারতের কাছে হারের বদলাও নিলো ঢাকা থেকে যাওয়া দলটি।

বাংলাদেশ আগামীকাল বৃহস্পতিবার মালদ্বীপ ও ২ আগস্ট নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ খেলবে। প্রথম ম্যাচে মালদ্বীপকে ৪-০তে হারিয়েছিল নেপালীরা।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলা একাদশকেই আজ মাঠে নামান কোচ পল স্মলি। এই আসরের অন্যতম ফেভারিট ভারত। তার উপর খেলা তাদেরই মাঠে। তবে ময়দানী লড়াইয়ে লাল-সবুজরাই এগিয়ে ছিল।

২৯ মিনিটে বাংলাদেশ ম্যাচে লিড নেয় ইমরান খানের লব থেকে পাওয়া বলে নোভা গোল করলে। ভারতীয় এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বাম পায়ের প্লেসিং শটে বল জালে পাঠান তিনি। অবশ্য বাংলাদেশের এই এগিয়ে থাকাটা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। ৩৪ মিনিটে ভারতের স্ট্রাইকার গুরকিরাত সিং ক্রস থেকে আসা বলে মাথা লাগিয়ে স্কোর ১-১ করে ফেলেন।

এরপর ৪৫ মিনিটে ফের লিড সাফের এই বিভাগের গত বারের রানার্সআপদের। পেনাল্টি থেকে আসরে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন নোভা। ম্যাচে এই নোভার আরো কয়েকটি প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়। অষ্টম মিনিটে লব থেকে বল পেয়ে আগুয়ান ভারতীয় গোলরক্ষক সৈয়দ জাহিদ হোসেন বুখারীর মাথার উপর দিয়ে বল পোস্টে ঠেলেন নোভা। কিন্তু সেই বল পোস্টে লেগে প্রতিহত হয়। ১৭ মিনিটে তিনি গোলরক্ষককে কাটিয়ে গোলে শট না নিয়ে সতীর্থের উদ্দেশ্যে বল পাঠান। কিন্তু এর আগেই তা ক্লিয়ার ভারতীয় ডিফেন্ডার কর্তৃক। এরপর ভারতের দুটি শট ব্যর্থ হয়। ২৯ মিনিটে বাংলাদেশ লিড নেয়ার পর তাদের আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

বিরতির পর ভারত চেষ্টা করে ম্যাচে ফেরার। কিন্তু তাদের পক্ষে তানভীরদের গড়া রক্ষণব্যুহ ভেদ করা সম্ভব হয়নি। আর বাংলাদেশ এক স্ট্রাইকারকে সামনে রেখে কাউন্টারে গোলের ব্যবধান বাড়ানোর চেষ্টা করে।

বয়সভিত্তিক সাফে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের এটি প্রথম জয় নয়। ২০১৭ সালে ভুটানের মাঠে অনূর্ধ্ব-১৮ সাফে বাংলাদেশ ৩ গোলে পিছিয়েও শেষ পর্যন্ত ৪-৩ গোলের অবিশ্বাস্য জয় পেয়েছিল। এর আগে ২০১৫ এর অনূর্ধ্ব-১৮ সাফে তাদের কাছে সেমিতে টাইব্রেকারে হেরেছিল। আর গত আসরের ফাইনালে ১০ জনের বাংলাদেশ ১-২ গোলে হারে একেবারে শেষ সময়ের গোলে।

ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ কোচ পল স্মলি জানান, ‘আমরা ভারতের ম্যাচের ভিডিও দেখে তা বিশ্লেষণ করে তা ফুটবলারদের বুঝিয়েছি। তারা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলার পর দ্রুত রিকভারি করতে পেরেছে। এই জয়ের আমরা এখন ফাইনালের পথে আরো একধাপ এগিয়ে গেলাম।’

দুই গোল করা নোভা সম্পর্কে বলেন, ‘সে বসুন্ধরা কিংসে ম্যাচ খেলার সুযোগ পায়নি। কিন্তু তার মধ্যে ভালো করার এবং গোল দেয়ার প্রচণ্ড ইচ্ছে আছে, যা আমাকে মুগ্ধ করেছে। কপাল খারাপ সে লঙ্কানদের বিপেক্ষ গোল পায়নি।’

ভারতের বিপক্ষে জোড়া গোল করা নোভা কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার ছেলে। বিকেএসপি থেকে সরাসরি এ বছর বসুন্ধরা কিংসে যোগ দেন। কিন্তু সেখানে বিদেশী আর জাতীয় দলের তারকাদের ভিড়ে খেলার সুযোগ হয়নি। কিন্তু অনূর্ধ্ব-২০ জাতীয় দলে আজ পেলেন দুই গোল।

২০১৯ সালে উয়েফা ফুটবলের ফাইনালে ফ্যারো আইল্যান্ডসের বিপক্ষে জয়সূচক গোল করা নোভা বলেন, ‘আগের রাতে আমার বড় ভাই আমাকে ফোনে বলেছিলেন তোমাকে বুঝাতে হবে বাংলাদেশেও প্রতিভাবান ফুটবলার আছে। এরপর রাতে ঘুমাতে পারিনি। এখন তাদের বিপক্ষে জোড়া গোল করে প্রমাণ করেছি বাংলাদেশও পারে।’

২০১৯ সালে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ জাতীয় দলের হয়ে নোভা খেলেন সাফ, উয়েফা ও এএফসির আসর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here