মুসলিম বন্দিকে মারধর করে পিঠে ‘ওম’ চিহ্ন এঁকে দিলেন জেল সুপার

552

ভারতের নয়াদিল্লির তিহার জেলে সাব্বির (৩৪) নামের এক মুসলিম বন্দিকে মারধর করে তাঁর পিঠে ‘ওম’ চিহ্ণ একে দিয়েছেন খোদ কারাকর্মকর্তারা। খবর ইন্ডিয়া টুডে’র।
বন্দির পরিবারের লোকজন স্থানীয় আদালতে মামলা করলে বিষয়টি সামনে আসে। মামলায় বলা হয়, জেলখানায় সাব্বিরের জীবন হুমকির মুখে। তাঁকে আদালতে আনা হলে বিচারক ওই মুসলিম যুবকের পিঠে ‘ওম’ চিহ্ন আঁকা দেখতে পান।

তাদের ব্যারাকের বৈদ্যুতিক চুলাটি ঠিকমতো কাজ করছে না বলে গত ১২ এপ্রিল জেল সুপার রাজেশ চৌহানের কাছে অভিযোগ জানাতে যান সাব্বির। এতে ক্ষেপে গিয়ে তাঁকে বেদম মারতে শুরু করেন জেল সুপার।
পরে সাব্বিরকে নিজের কক্ষে ডেকে নিয়ে ‘নেতা হতে চাও’ বলে অন্য কর্মকর্তাদের নিয়ে পেটাতে থাকেন রাজেশ চৌহান। এ সময় লোহার ‘ওম’ চিহ্ন নিয়ে তা গরম করে সাব্বিরের পিঠে ঠেসে ধরেন তিনি।
এ ঘটনার প্রতিবাদে দুদিন কোনো খাবার খাননি সাব্বির। অন্যদিকে ১৪ এপ্রিল রাজেশ চৌহান বলেন, ‘হিন্দুধর্ম গ্রহণ করায় সাব্বির হিন্দুদের উৎসব নবরাত্রি চলাকালে কোনো খাবার খায়নি।’
সেদিন জেলসুপার সাব্বিরকে লক্ষ্য করে বলেন, তোমরা মুসলিমরাই আমাদের দেশটাকে ধ্বংস করেছ।
২০১৭ সালের নভেম্বর থেকে জেলে রয়েছেন সাব্বির।
১৭ এপ্রিল সাব্বিরকে আদালতে তোলা হলে বিচারক নিজ চোখে তাঁর পিঠের ওই চিহ্ন দেখেন এবং তাঁর চিকিৎসার ব্যবস্থার পাশাপাশি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। এ সময় রাজেশ চৌহানকে জেল সুপারের পদ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here