যেকোনো মুহূর্তে আ’লীগের মৃত্যুর খবর পাবেন : আমির খসরু

10

 

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, আপনার যেকোনো মুহূর্তে আওয়ামী লীগের মৃত্যুর খবর পাবেন। বাংলাদেশের মানুষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে এই দখলবাজ, স্বৈরাচার ও অবৈধ সরকারকে তারা উৎখাত করবে।

শুক্রবার বিকেলে ঢাকা-৬ জোন আয়োজিত বিএনপির সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, যারা বাংলাদেশে আওয়ামী পুলিশের ভূমিকা পালন করছেন তাদেরকে পরিষ্কারভাবে বলতে চাই বাংলাদেশের সংবিধানে আপনাদের দায়িত্ব হচ্ছে এ দেশের মানুষের জীবনের সুরক্ষা দেয়া। বাংলাদেশের মানুষের সাংবিধানিক অধিকার নিশ্চিত করা। বাংলাদেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার নিশ্চিত করা। কিন্তু আপনারা যারা আওয়ামী পুলিশ বাহিনী হওয়ার চেষ্টা করছেন অথবা হয়ে গেছেন তাদের প্রতি স্পষ্ট বার্তা দিতে চাই, আপনারা যদি সেই পথে যান সেটা শুধু বাংলাদেশের সংবিধান, মানবাধিকার ও গণতন্ত্র লঙ্ঘন নয় এটা আন্তর্জাতিক ক্রাইমের আওতায় পড়ে।

তিনি বলেন, দেশে-বিদেশে আপনাদেরকে (পুলিশ) সকলে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছেন। কেউ রেহাই পাবেন না। অনেকে পালিয়ে যাওয়ার কথা বলছেন তো এখন পালিয়ে গিয়ে আর রক্ষা পাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। মইনুদ্দিন-ফখরুদ্দিন পালিয়ে গেছে কিন্তু ঘর থেকে বের হওয়ার আগে চারদিকে খবর নিতে হয় কোনো বাংলাদেশীরা সেখানে জমায়েত হয়েছে কিনা। তারা মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে, জানাজায় গিয়ে লাঞ্চিত হয়। তারা বিদেশে গিয়েও রক্ষা পাচ্ছে না। সুতরাং যদি মনে করেন পালিয়ে গিয়ে রক্ষা পাবেন সেটা একেবারে ভুল ধারণা।

পুলিশের উদ্দেশে বিএনপির এই নীতিনির্ধারক আরো বলেন, দেশের সংবিধান ও মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং গণতন্ত্রকে হত্যা করার জন্য আপনাদের এ দেশে বিচার হবে। আপনারা কোনো বিচার থেকে রেহাই পাবেন না। তাই যারা আওয়ামী পুলিশ হয়ে গেছেন তাদেরকে আমি স্পষ্টভাবে বলতে চাই এখনো সময় আছে বাংলাদেশের মানুষের বিপক্ষে অবস্থান নেয়া বন্ধ করুন। আপনারা যে অবস্থানটা নেয়ার চেষ্টা করছেন সেটা এ দেশের মানুষের বিপক্ষে অবস্থান করার চেষ্টা করছেন। সেই অবস্থানে যাওয়ার চেষ্টা করবেন না। কারণ বাংলাদেশ বিগত দিনে যারাই এই চেষ্টা করেছে তারা কেউ রেহাই পায়নি।

বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বেগম সেলিমা ইসলাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র আহবায়ক আব্দুস সালাম, উত্তর বিএনপি’র আহবায়ক আমানউল্লাহ আমান, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, ডাকসুর সাবেক এজিএস নাজিম উদ্দিন আলম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম মজনু ও উত্তর বিএনপির সদস্য সচিব আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here