শুভ জন্মদিন…

91

বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান- ফরিদপুর জেলার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া গ্রামে’ অভিজাত মুসলিম শেখ পরিবারে ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ জন্মগ্রহণ করেন।
পিতা শেখ লুৎফর রহমান ও মাতা শেখ সায়েরা খাতুনের তৃতীয় সন্তান সেই খোকা’ আজকের বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
আপনার শুভ জন্মদিনে-বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি, হে বাঙালি জাতির জনক।
তবে দুঃখভরা ক্লান্ত মন নিয়ে বলতে হচ্ছে স্বাধীনতার ৫১ বছর পরেও আমরা কয়লা বাসি শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে আপনার স্মৃতিতে শ্রদ্ধা জানাবো সেই সামর্থ্য টুকু কয়লা বাসীর নেই, আসলে আমরা অকৃতজ্ঞ, যদি আমাদের কৃতজ্ঞতাবোধ থাকতো- তাহলে কয়লা ৬নং ওয়ার্ডে একটা শহীদ মিনার থাকতো।
যে বঙ্গবন্ধুর জন্য আমরা স্বাধীন রাষ্ট্র পেয়েছি, স্বাধীনভাবে চলার অধিকার পেয়েছি, যে ভাষা এবং স্বাধীনতার জন্য লক্ষ লক্ষ বীর সেনা শহীদ হয়েছেন, আপনি সহ সে বীর শহীদদের স্মরণে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাতে- স্বাধীনতার ৫১ বছর পরেও কয়লা ৬নং ওয়ার্ডের মত জনবহুল এলাকায় একটা শহীদ মিনার স্থাপন করার সামর্থ কোন নেতার হয়নি’ এটা ভাবতে দুঃখ ও লজ্জা দুটোই লাগে!!!
এখন জনমনে প্রশ্ন আসাটাই স্বাভাবিক, তাহলে কি কয়লার নেতারা জাতির জনক হিসেবে আপনাকে হৃদয়ে ধারণ করতে পারেনি? তারা শুধু বঙ্গবন্ধুর ছবি আর নাম ব্যবহার করে টাকাই কামিয়েছে এতদিন?
কয়লা বাসির একটা বিষয় খুবই লক্ষনীয়, ইদানিং কয়লাতে- ভাষা দিবস, স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবস এবং শোক দিবসের মত জাতীয় দিবসগুলোও আর পালন করতে মনে থাকেনা, নেতাদের, বঙ্গবন্ধু এবং বীর শহীদদের স্মরণে ইদানিং একটা মাইকও বাজাতে শোনা যায় না-
এমনিতে আমরা সবাই আওয়ামীলীগ, বঙ্গবন্ধুর সৈনিক বলে দাবী করি নিজেদের, কিন্তু বঙ্গবন্ধুর প্রতি কোন দায়িত্ব বা কৃতজ্ঞতাবোধ কোনটাই নেই আমাদের, আমাদের মধ্যে যাহা রয়েছে, তা শুধুই টাকা কামানোর উদ্দেশ্যে, কোন আদর্শ নয়।
কথাগুলো উল্লেখ না করে পারলাম না, কেননা অনেক বড় আশা ছিল আগামী কাল স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং ১০২তম শুভ জন্মদিনে- পিতা মুজিবের স্মরণে- নিজের এলাকায় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করবো, কিন্তু আফসোস তা আর করা হলো না, কিভাবে করবো? আমাদের কয়লাতে তো একটা শহীদ মিনারও নেই!!!
হে বাঙালি জাতির জনক ক্ষমা করে দিও আমাদের, ক্ষমা চাই সকল শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে, কারণ আমরা সত্যিই অকৃতজ্ঞ জাতি,, মহান আল্লাহ যদি আমাকে সেই সামর্থ দিতেন,
তাহলে আমি নিজেই কয়লাতে একটা শহীদ মিনার স্থাপন করতাম, তবে সে সামর্থ আল্লাহ আমাকে দেননি, সে হিসেবে আমি নিজেও ব্যর্থ।
এই মহা সত্যি কথাগুলো বলার কারণে যদি কেউ কষ্ট পেয়ে থাকেন, তাহলে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি, ধন্যবাদ সবাইকে।
জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু, জয়তু শেখ হাসিনা জয় হোক তৃণমূল কর্মীদের।

লেখক
মোঃ সেকান্তর রানা
১নং করেরহাট ইউনিয়ন, যুবলীগের অতি নগন্য একজন পথ ও অর্থহীন ব্যর্থ কর্মী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here